বৃহস্পতিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ০৩:১২ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
রাঙ্গামাটি বাঘােইছড়িতে প্রকল্প অফিসে দুর্বৃত্তদের গুলিতে ইউপি মেম্বার নিহত বন্য হাতির আক্রমণে লামায় যুবতির মৃত্যু ধর্ষণ মামলায় রাঙ্গামাটিতে ইউপি চেয়ারম্যান  কারাগারে  থানচিতে হিউমেনিটারিয়ান ফাউন্ডেশন গরীব প্রশিক্ষণার্থীদের মাঝে বিনামূল্যে বিভিন্ন সামগ্রী বিতরণ বান্দরবান সেনাবাহিনী বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা প্রদান সাংবাদিক বোরহান উদ্দিন মুজাক্কির হত্যার প্রতিবাদে লামায় মানববন্ধন থানচিতে যথাযোগ্য মর্যাদায় শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত বান্দরবানে একুশে ফেব্রুয়ারি উদযাপন টানা ছুটিতে বান্দরবানে পর্যটন স্পটগুলোতে পর্যটকদের ঢল সাজেকে মালবাহী ট্রাক উল্টে আহত-৭
আলীকদমে ধর্মীয় ও সামাজিক সম্প্রীতি বৃদ্ধির লক্ষ্যে আন্তঃ ধর্মীয় সংলাপ সভা অনুষ্ঠিত 

আলীকদমে ধর্মীয় ও সামাজিক সম্প্রীতি বৃদ্ধির লক্ষ্যে আন্তঃ ধর্মীয় সংলাপ সভা অনুষ্ঠিত 

হিল্লোল দত্ত,আলীকদমঃ
বান্দরবানের আলীকদম উপজেলায় আন্তঃধর্মীয় সংলাপ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। আজ ২৮ মে মঙ্গরবার বেলা ১১ টায় উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে বলিপাড়া নারী কল্যান সংস্থার বাস্তবায়নে এসআইডি সিএইচটি ইউএনডিপি প্রকল্পের সহায়তায় লোকাল ভলান্টিয়ার মেডিয়েটরস ফোরাম এ সংলাপ সভা অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।
আলীকদম উপজেলা লোকাল ভলান্টিয়ার মেডিয়েটরস ফোরামের সভাপতি ফোগ্য মার্মার সভাপতিত্বে ও এসআইডি সিএইচটি প্রকল্পের প্রজেক্ট কোর্ডিনেটর উইলিয়াম মার্মার সঞ্চালনায় সংলাপ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, হিন্দু ধর্মীয় আলোচক বনবিহারী দে, ইসলাম ধর্মীয় আলোচক মাওলানা বেলাল উদ্দিন সিরাজী, বৌদ্ধ ধর্মীয় আলোচক শীলাময় ভান্তে, খ্রীস্টান ধর্মীয় আলোচক সজল কস্ট্রা, এসআইডি-সিএইচটি ইউএনডিপির ডিস্ট্রিক ম্যানেজার খুশিরায় ত্রিপুরাসহ ইউনিয়ন পরিষদের সদস্যগন, মৌজা হেডম্যানগন, বিভিন্ন বিদ্যালয়ের শিক্ষক ও সাংবাদিকবৃন্দ।
সংলাপে উদ্ভোধনী বক্তব্যের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠানের শুভ উদ্বোধন করেন,  উপজেলা লোকাল মেডিয়েটরস ফোরামের সভাপতি ফোগ্য মার্মা। এ সময় আলোচকরা বক্তব্যে বলেন ধর্মীয় ও সামাজিক সম্প্রীতি, সহাবস্থান,সামাজিক স্থিতিশীলতা, জাতি,ধর্ম,বর্ণ ও গোত্র নির্বিশেষে একে অপরের প্রতি পারস্পরিক শ্রদ্ধাবোধ তৈরী করতে হবে। আবহমান কাল থেকেই বিভিন্ন জাতিগোষ্ঠী ও বিভিন্ন ধর্মীয় বিশ্বাসী মানুষের বসবাস এই পার্বত্য অঞ্চলে। তাই এই ধর্মীয় ও সামাজিক সম্প্রীতির সম্পর্ক কখনো নষ্ট হতে দেয়া যাবে না। সকল ধর্মীয় গুরুদের একটা মঞ্চে নিয়ে এসে ধর্মীয় সস্প্রীতির বন্ধন আরো জোরদার করতে হবে।
নিজ নিজ অবস্থানে থেকে শান্তি আনয়ন, স্থিতিশীলতা রক্ষা ও সাম্প্রদায়িক উত্তেজনা দূর করতে হবে। মনে রাখতে হবে ধর্মীয় ভাতৃত্ববোধ বজায় রাখা গেলে ও অন্য ধর্মের প্রতি শ্রদ্ধাবোধ জাগ্রত করতে পারলে আমাদের মধ্যে কোনো প্রকার হানাহানি হবে না,কোনো প্রকার সামাজিক অস্থিরতা থাকবে না, মানুষের মধ্যে যে পারস্পরিক অবিশ্বাস ও আস্তার সংকট তাও থাকবে না।

ভালো লাগলে সংবাদটি শেয়ার করুন....

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2018 Bandarban Pratidin.com
Design & Developed BY CHT Technology