রবিবার, ১৩ Jun ২০২১, ০৬:৩০ অপরাহ্ন

 আলীকদমে বেড়েছে ডেঙ্গুর প্রকোপ, জনমনে আতঙ্ক

 আলীকদমে বেড়েছে ডেঙ্গুর প্রকোপ, জনমনে আতঙ্ক

হিল্লোল দত্ত, আলীকদম প্রতিনিধিঃ
বান্দরবানের আলীকদম উপজেলায় ডেঙ্গুর প্রকোপ মারাত্মক আকার ধারণ করেছে। উপজেলা সদরের খুইল্যা মিয়াপাড়া, বাজার মার্মা পাড়া, নয়াপাড়া, সহ বিভিন্ন পাড়ায় চলতি মাসে ডেঙ্গু আক্রান্তের সংখ্যা ৪০জন ছাড়িয়েছে বলে বিভিন্ন সূত্রে জানাগেছে।

দিনদিন ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বৃদ্ধি পাওয়ায় এলাকাবাসীর মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে। রোগের লক্ষণ দেখে আলীকদম উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও আলীকদম বাজারস্থ প্যাথলজিতে পরীক্ষার মাধ্যমে রোগ নির্ণয় পরবর্তী চিকিৎসার জন্য চলে যাচ্ছে চট্টগ্রামসহ দেশের বিভিন্ন প্রাইভেট হাসপাতালে। এ রিপোর্ট লিখা পর্যন্ত ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর সংবাদ পাওয়া যায়নি তবে আশংঙ্খাজনক অবস্থায় চট্রগ্রামের আইসিইউতে কয়েকজন ভর্তি থাকার খবর পাওয়া গেছে।

খুইল্যা মিয়া পাড়ার সর্দার ফরিদুল আলম জানান, গত মাসে খুইল্যামিয়া পাড়া সংলগ্ন মার্মা পাড়ার বাসিন্দা উথাইপ্রু মার্মা ডেঙ্গু রোগে আক্রান্ত হন। তিনি চট্টগ্রাম গিয়ে চিকিৎসার মাধ্যমে সুস্থ হয়ে আসার পর দুই পাড়ার লোকজনের মধ্যে ডেঙ্গু আক্রান্ত হওয়ার লক্ষণ দেখা দেয়। পরে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও বাজারের প্যাথলজি থেকে রক্ত পরীক্ষা করে একের পর এক ডেঙ্গু রোগী সনাক্ত হতে থাকে। বর্তমানে আক্রান্তদের অনেকের অবস্থা আশংখাজনক হওয়ায় চট্রগ্রামের ভালো ভালো হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন। তিনি আরো বলেন, এ পর্যন্ত খুইল্যা মিয়া পাড়ায় একই পরিবারের হাজী ইসহাক আহমদ, নাজমুন্নাহার, মালেকা আক্তার, রুকছি মনি, সুমাইয়া জান্নাত, সাহিদা জান্নাত, আসরাফুল ইসলাম রাহাত, নুসরাতুল জান্নাত, তাহমিত, আসিফা মনি, সাদিয়া মনিসহ ২৬ জন ও বাজার মার্মা পাড়ায় ৫-৬ জন ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়েছে। এ সময় তিনি বলেন, আমরা এই বিষয়ে আলীকদম জোন বরাবরে দরখাস্ত করেছি। গত শুক্রবার ইউএনও স্যার ও স্বাস্থ্য বিভাগের ডাক্তার এসেছিল পরিদর্শনে। তবে ডেঙ্গু সংক্রান্ত বিষয়ে এখনো পর্যন্ত স্বাস্থ্য বিভাগ থেকে আমরা কোনো সহায়তা পাইনি।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পঃপঃ কর্মকর্তা ডাঃ শহিদুর রহমানকে মুঠোফোনে কল দিয়ে এ পর্যন্ত কতজন ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়েছে এর কোন সরকারি হিসেব উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আছে কি না জানতে চাইলে তিনি জানান- এ বিষয়ে তদন্ত কমিটি করা হয়েছে, এর বেশী কিছু মোবাইল ফোনে তথ্য প্রদান সম্ভব নয়।  সরেজমিনে গিয়ে তদন্ত করে পত্রিকায় রিপোর্ট লিখার জন্য বলেন তিনি।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ সায়েদ ইকবালের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করে আলীকদমে এ পর্যন্ত কতজন ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়েছে এবং এ বিষয়ে কোনো ব্যবস্থা নেয়া হবে কিনা জানতে চাওয়া হলে তিনি জানান- তার সঠিক সরকারি পরিসংখ্যান উপজেলা প্রশাসনে এখনো পাওয়া যায়নি। তবে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে যোগাযোগ করে সঠিক সংখ্যা নেওয়ার পরামর্শ দেন এবং গত শুক্রবার উপজেলার সবচেয়ে ডেঙ্গু প্রাদুর্ভাব এলাকা খুইল্যামিয়া পাড়া ও আশপাশের এলাকা পরিদর্শন করে স্থানীয়দের সচেতনতার বিষয়ে উদ্বুদ্ধ করার কথা জানিয়েছেন এবং এ বিষয়ে সকলকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান।

ভালো লাগলে সংবাদটি শেয়ার করুন....

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2018 Bandarban Pratidin.com
Design & Developed BY CHT Technology