শুক্রবার, ৩০ Jul ২০২১, ১১:০৭ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
রুমায় ভালুকের আক্রমণে গুরুতর আহত হলো জুম চাষি আগামী রবিবারে রাণীমা মরদেহ সৎকার করা হবে নাইক্ষ্যংছড়ির ঘুমধুমে রোহিঙ্গার শরনার্থীর লাশ উদ্ধার নাইক্ষ্যংছড়ি ঘুমধুমে ৪ শতাধিক পরিবার পানিবন্ধী, খামারিদের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি ঈদগাঁও -ইদগড় -বাইশারী সড়ক নদীর বুকে বিলীন, যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন টানা বৃষ্টিতে মহেশখালীতে পাহাড় ধ্বসে ২ জনের মৃত্যু! ৪শতাধিক ঘরবাাড়ি পানিবন্দি কেশবপুরে চালবাহী ট্রাক উল্টে মাছের ঘেরে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করলেন বান্দরবানে রাণী মা মাশৈনু  নাইক্ষ্যংছড়ি ঘুমধুমে বন্যার পানিতে ভেসে ২ জনের মৃত্যু, নিখোঁজ ১  ভারী বর্ষণে নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হচ্ছে নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা
ঈদগড়-কাগজীখোলা সড়কের বেহাল দশা !

ঈদগড়-কাগজীখোলা সড়কের বেহাল দশা !

আবদুর রশিদ নাইক্ষ্যংছড়ি প্রতিনিধিঃ
বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার বাইশারী ইউনিয়নের  বিচ্ছিন্ন এলাকা ১ ও ২নং ওয়ার্ড়ের একমাত্র যোগাযোগের মাধ্যম  ঈদগড়-কাগজীখোলা সড়কটি।  শুকনো মৌসুমে কোন রকম যানবাহন চলাচল করলেও  বর্ষা মৌসুমে বর্তমানে বেহাল দশায় পরিণত হয়েছে। বাইশারী ইউনিয়ন পরিষদ থেকে মাঝখানে রামু উপজেলার ইদগড় ইউনিয়নের অবস্থান। এরপর রয়েছে বাইশারী ইউনিয়নের ৩ টি ওয়ার্ড়ের অবস্থান। (১ , ২  ও  ৩ নং ওয়ার্ড়)
যুগ যুগ ধরে সড়কটির বেহাল দশার কারনে দুর্গম এলাকার মানুষ শিক্ষা , স্বাস্থ্য,  চিকিৎসা,  সাংস্কৃতিক, খেলাধুলা সহ নানা ধরনের নাগরিক  সুবিধা থেকে পিছিয়ে রয়েছে। ৩ টি ওয়ার্ড়ে কমপক্ষে ১০ হাজার লোকের বসবাস রয়েছে বলে জানালেন স্থানীয় ইউপি সদস্য  মোঃ, শাহাবুদ্দিন।
সরজমিনে এলাকা ঘুরে স্থানীয় বাসিন্দাদের সাথে কথা বলে জানা যায় , ইদগড় – বাজার হয়ে কাগজী খোলা সড়কটি প্রায় সাড়ে সাত কিলোমিটার। বর্তমানে সড়কটি ইট বিছানো অবস্থায় থাকলে ও ভারী বর্ষনের ফলে সড়কের বিভিন্ন স্থান খানখন্দ, কাদামাটি ভরে পাহাড়ী ছড়ায় পরিণত হয়েছে। সড়কের নিরিবিলি রাবারবাগান, ছৈক্যার উঠনি,আশ্রয়ন প্রকল্প  তোয়াম্মার পাড়া, ক্যাংগারবিল ক্যথোইপাড়া পাড়া সহ বিভিন্ন স্থানের অবস্থা দেখলে বুঝার উপায় নেয় এটি সড়ক!! না ভিন্ন কিছু।
সড়কটির বেহাল দশার কারনে স্কুল, কলেজ, মাদরাসা মক্তবে পড়ুয়া ছাত্র- ছাত্রীরা পায়ে হেটে দীর্ঘ পথ পাড়ি দিয়ে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে আসা খুবই কষ্ট হয়ে পড়েছে।
১ নং ওয়ার্ড় ইউপি সদস্য ও পেনেল চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন বলেন, সড়কটির বেহাল দশার কারনে আমরা ১০ হাজার মানুষ এখন সড়কটির জিম্মায়। পায়ে হেটে যাওয়া ছাড়া আর কোন উপায় নাই। বাজারের নিত্য প্রয়োনীয় মালামাল আনা নেওয়া, উৎপাদিত পন্য বাজারজাত করনে কাধে বহন করা ছাড়া আর বিকল্প কোন ব্যবস্থা নেই। তাছাড়া অসুস্থ রোগীদেরকে ও কাধে করে নিয়ে যেতে হয়।
তিনি আরো বলেন, কাগজীখোলায় একটি পুলিশ ফাড়ী, একটি প্রাখমিক বিদ্যালয়, একটি মাদ্রাসা রয়েছে এবং ছোট একটি বাজার রয়েছে। শুধুমাত্র সড়কের বেহাল অবস্থার কারনে সবকিছু অপরিপুর্ন।
এবিষয়ে বাইশারী ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ আলম কোম্পানি বলেন, পার্বত্যমন্ত্রী বীর বাহাদুর এম পি আন্তরিকতায় ইদগড় কাগজীখোলা সড়ক, আলিক্ষং সড়ক, অবশ্যই পাকা হবে এবং অন্যান্য সমস্যাগুলু ও সমাধান হবে।  এই বিষয়টি উপজেলা সমন্নয় সভায় ও প্রস্তাব তুলে ধরা হয়েছে।
উপজেলা সহকারী প্রকৌশলী রেজাউল করিম জানান, ইট বিছানো ইদগড় -কাগজীখোলা সড়কটি ইতিমধ্যে কার্পেটিং করার জন্য সড়কটি মেপে নেওয়া হয়েছে এবং এবিষয়ে যাবতিয় কাগজপত্র  সংশ্লিষ্ট কতৃ্পক্ষের নিকট পাঠানো হয়েছে। অচিরেই সড়কটি উন্নয়ন কাজ শুরু হয়ে যাবে।

ভালো লাগলে সংবাদটি শেয়ার করুন....

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2018 Bandarban Pratidin.com
Design & Developed BY CHT Technology