বৃহস্পতিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২০, ০৪:০৪ অপরাহ্ন

কে এস মংসহ ১০জনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছে পুলিশ

কে এস মংসহ ১০জনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছে পুলিশ

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ
বান্দরবানে অপহৃত আওয়ামী লীগ নেতা চথোয়াই মং মারমার হত্যার ঘটনায় জনসংহতি সমিতির কেন্দ্রীয় যুগ্ম-সম্পাদক আঞ্চলিক পরিষদের সদস্য কেএস মং মারমা ও জেএসএস এর জেলা সাধারণ সম্পাদক ক্যাবা মং মার্মাসহ ১০ জনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছে বান্দরবান সদর থানা পুলিশ।

আজ ২৫ মে  শনিবার বিকেলে সেনাবাহিনী তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করার পরে পুলিশ তাদের আটক করেন। আটককৃত‌দের ম‌ধ্যে  জনসংহতি সমিতির জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক ক্যবামং মারমা, মৌজা হেডম্যান থোয়াই হ্লা প্রু মারমা ও জর্ডান পাড়ার পাড়া প্রধান (কারবারি) মংহ্লা ত্রিপুরা বাকিদের নাম ও ঠিকানা  জানা সম্ভব  হয়নি।

সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শহিদুল ইসলাম চৌধুরী জানান, আটক বললে হবে না তাদেরকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ করার জন্যই থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদের পরে তাদের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

এদিকে, আওয়ামী লীগ নেতা হত্যার প্রতিবাদে রবিবার জেলায় অর্ধদিবস হরতালের ডাক দি‌য়ে‌ছে জেলা আওয়ামী লীগ। শনিবার দুপুরে সন্ত্রাসীদের হাতে অপহৃত পৌর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি চথোয়াই মং মারমার লাশ উদ্ধারের পর নেতারা এ কর্মসূচি ঘোষণা করেন। ভোর ৬টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত ৭ উপজেলায় হরতাল পালন করা হবে বলে জানান নেতারা।

উল্লেখ্য, গত ১৫ দিনের মধ্যে বান্দরবান সদর উপজেলার রাজবিলা ও কুহালং এলাকায় সন্ত্রাসীদের হাতে ৪জন নিহত ও একজন অপহৃত হয়েছেন। নিহতদের মধ্যে দুজন আওয়ামী লীগের ও দুজন জনসংহতি সমিতি (জেএসএস)এর সমর্থক। রাজবিলা কুহালংসহ বিভিন্ন এলাকায় অপহরণ, হত্যাকান্ডের ঘটনায় আতঙ্ক বিরাজ করছে। সন্ত্রাসীদের ভয়ে বিভিন্ন এলাকায় রাতে বাড়ির বাহিরে পালিয়ে বেড়াতে হচ্ছে এলাকার যুবকদের। সন্ত্রাসীদের ভয়ে বিভিন্ন এলাকার রাতে বাড়ির বাইরে পালিয়ে রাত্রি যাপন করতে হচ্ছে।

ভালো লাগলে সংবাদটি শেয়ার করুন....

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2018 Bandarban Pratidin.com
Design & Developed BY CHT Technology