সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪, ০৭:৩৩ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
রাঙ্গামাটিতে দোলযাত্রা হোলি রঙের উৎসব পালিত বান্দরবানে উদযাপিত করল জাতীয় সমাজসেবা দিবস-২০২৩ বান্দরবান দলবনিয়া এলাকায় বন্যা দূর্গতদের মাঝে মোবাইল হেলথ ক্যাম্প ইউপিডিএফের ৪ নেতাকে হত্যার প্রতিবাদে মানিকছড়িতে অবরোধ চলছে কলাবতী শাড়ি আগামীতে দেশের বাইরে রপ্তানিতে ছেয়ে যাবে – শাহ্ মোজাহিদ রোয়াংছড়ি তুলাছড়ি পাড়ায় প্রতিবেশ পুনরুদ্ধারে পিআইসি’র কমিউনিটি চার্টার বিষয়ক মতবিনিময় বান্দরবানে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত ৬শ পরিবারকে শক্তি ফাউন্ডেশনের ত্রাণ বিতরণ নাইক্ষ্যংছড়িতে পাহাড় ধ্বসে শিশুসহ একই পরিবারের আহত ৪ বাান্দরবানে কর্মরত সাংবাদিকদের সাথে বাল্যবিবাহ নিরোধকল্পে বিষয়ে ওরিয়েন্টেশন করল গ্রীনহিল দি মারমা কো অপারেটিভ ক্রেডিট ইউনিয়ন ৯ম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন
ড্রাগন চাষে লাভবান নাইক্ষ্যংছড়ির ইউছুপ আজাদ

ড্রাগন চাষে লাভবান নাইক্ষ্যংছড়ির ইউছুপ আজাদ

ষ্টাফ রির্পোটার; রিমন পালিতঃ
এলাকায় ড্রাগন ফলের পরিচিতি না থাকলেও চাষ করে আর্থিকভাবে লাভবান হচ্ছে বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি সদরের ইউছুপ আজাদ মুন্না। বর্তমানে তার দেখাদেখি এলাকার অনেক কৃষকড্রাগন চাষে আগ্রহী হয়ে উঠেছে। ড্রাগন চাষের বাগানের পাশাপাশি মুন্না গড়ে তোলেছেন নারিকেল, লেবুসহ অন্যান্য বাগান।

জানা গেছে, ২০১৬ সনের জুন মাসে নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা সদরের আদর্শগ্রাম এলাকায় ৪০ শতক জায়গার উপর চাষ শুরু করেন মুন্না। শুরুতে উপজেলা হর্টিকালচার সেন্টার থেকে তাকে চারা ও খুটি সরবরাহ করা হয়।
বর্তমানে এই বাগানে ৪০টি খুটিতে লাগানো ১৯০টি চারাই ফলন ধরেছে। প্রতি কেজি ড্রাগন ৫০০-৭০০ টাকায় বিক্রি হয়।

তরুণ কৃষক ইউছুপ আজাদ মুন্না জানান, “ইতোমধ্যে বাগান থেকে ৪০কেজি ড্রাগন বিক্রি করেছি” আরো ১২০কেজি চারা সংগ্রহ করা যাবে। লাভজনক ড্রাগনের এই চাষ করার জন্য অন্যান্য কৃষকদেরও আহ্বান জানান তিনি।

উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অফিস সূত্র জানায়, এককালীন বিনিয়োগ করে দুই যুগ ধরে আয়ের উৎস গড়া যায় এই ড্রাগনের বাগান থেকে। ড্রাগন ফল প্রচুর আলো পছন্দ করে। পানি জমে না এমন উঁচু জমিতে এ ফলের চাষ করা ভালো। শুষ্ক মৌসুমে অবশ্যই সেচ ও বর্ষা মৌসুমে নিষ্কাশনের ব্যবস্থা করতে হবে।

সরেজমিনে কথা হলে নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা কৃষি অধিদপ্তরের সদর ব্লকের উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা মুহিবউল্লাহ জানান- মুন্না একজন উদ্যোগী কৃষক। হর্টিকালচার সেন্টারের সহযোগিতায় সে বাগানটি গড়ে তোলেছে। উপজেলা কৃষি বিভাগ থেকেও তাকে সর্বাত্মক সহায়তা দেওয়া হচ্ছে। এই ফলটি এলাকায় আরো সম্প্রসারিত হবে বলে মনে করছেন তিনি।

ভালো লাগলে সংবাদটি শেয়ার করুন....

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2018 Bandarban Pratidin.com
Design & Developed BY CHT Technology