রবিবার, ০৭ Jun ২০২০, ০৪:৪৭ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
১৫জুন পর্যন্ত বান্দরবানে হোটেল,মোটেল ও রিসোর্ট খোলা থাকবে রাঙ্গামাটিতে কিস্তি আদায়ে ঋণ গ্রাহককে চাপ প্রয়োগ করোনায় ১৮ চিকিৎসকের মৃত্যু বাংলাদেশ- মিয়ানমার সীমান্তে গুলিবর্ষণ,  বিজিবির সর্তকতা জোরদার ফারুক পাড়া ও লাইমি পাড়ায় খাদ্য সামগ্রী বিতরণ অব্যাহত রেখেছে সেনাবাহিনী সংবাদ প্রকাশের পর প্রশাসন বাইশারীর বাজার স্থানান্তর! ব্যবসায়ীদের মাঝে স্বস্তি  আলীকদমে যৌথ বাহিনীর অভিযানে অস্ত্র ও ইয়াবা উদ্ধার নাইক্ষ্যংছড়িতে করোনায় করণীয় বিষয়ক মতবিনিময় সভা  রাঙ্গামাটিতে ঝুঁকিপূর্ণ স্থানগুলোকে চিহ্নিত করে জেলা প্রশাসকের সাইনবোর্ড উখিয়ায় জানাযা পড়া অবস্থায় মুসল্লীর মৃত্যু  
দেখিয়ে দিলেন প্রতিবন্ধীরা বোঝা নয়, আলাউদ্দিনের সবজি চাষের সফলতা

দেখিয়ে দিলেন প্রতিবন্ধীরা বোঝা নয়, আলাউদ্দিনের সবজি চাষের সফলতা

আব্দুর রশিদ, নাইক্ষ্যংছড়ি প্রতিনিধিঃ
প্রতিবন্ধীরা এখন আর সমাজের বোঝা নয়। প্রতিবন্ধীরা ও পারে এই সমাজের চিত্রকে পাল্টে দিতে। যার প্রমাণ দিলেন জম্ম থেকে প্রতিবন্ধী মোঃ আলাউদ্দিন।

বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার বাইশারী ইউনিয়নের পশ্চিম বাইশারী গ্রামে ভাড়াবাসা নিয়ে বসবাস করে আলাউদ্দিন। জন্মস্থান ফেনী জেলার ছাগলনাইয়া উপজেলায় হলেও স্ব-পরিবারে দীর্ঘকাল যাবৎ বসবাস করেন বাইশারীতে। প্রতিবন্ধী আলাউদ্দিনের চেষ্টার সফল। অন্য প্রতিবন্ধীদের মতন কারো কাছে হাত পাতেনা। নিজে ও সচলভাবে চলার চেষ্টা করে সেই সাথে তার সবজি ক্ষেতে ১০ জন শ্রমিক তার অধীনে কাজ করে সংসার চালায়।

বাইশারী বাজারে রয়েছে তার বিশাল হোটেল। রান্নাবান্না সহ বিভিন্ন রকমের নাস্তা তৈরিতে সে পারদর্শী। তারপর ও সে বসে নেই এবার শুকনো মৌসুমে ২ একর জমিতে সবজি চাষ করে নাইক্ষ্যংছড়িতে তাক লাগিয়ে দিয়েছে।

গতকাল সরজমিনে পরিদর্শন করে প্রতিবন্ধী আলাউদ্দিন বলেন, ২ একর জমি বর্গা নিয়ে বিভিন্ন জাতের সবজি চাষ শুরু করে সফলের মুখ দেখেন। এ পর্যন্ত তার ক্ষেতের টমেটো বিক্রি করেছেন প্রায় ৯ হাজার কেজি আরো অনেক টমেটো ক্ষেতে রয়েছে। টমেটোর পাশাপাশি তিনি বর্তমানে চাষ করেছেন মরিচ, তিত করলা, বেগুন, ক্ষিরা, লালশাক, কচুসহ নানা জাতের সবজি। এখন পযর্ন্ত টমেটো বিক্রি করে মুলধন ছাড়া লাখ টাকা আয় করেছেন। বাকী থাকা অনান্য সবজি এখনো বাজারজাত করার মত সময় হয়নি।

জন্ম থেকে তার একটি পা না থাকলে ও তিনি কোনদিন সাহস হারাননি। সরকারী ভাবে তদারকি ও পরামর্শ পেলে আরো ভালো ফলনের আশা ব্যাক্ত করেন। আগামী রমজান মাসের জন্য ক্ষিরা, শসা, ও মরিচের আবাদ করেছেন। আবহাওয়া অনুকুলে থাকলে এ মৌসুমেই আরো লাখ টাকা আয় করা সম্ভব হবে বলে তিনি জানান।

উপসহকারী কৃষি অফিসার রফিকুল আলম বলেন, প্রতিবন্ধী আলাউদ্দিন একজন সফল চাষী। অনেক সময় তার বিভিন্ন সবজি চাষের সফলতার জন্য পরামর্শ দিয়ে থাকি। আগামীতে সরকারীভাবে বীজ, সার, কীটনাশক ও প্রশিক্ষণের মাধ্যমে সহায়তা দেয়ার চেষ্টা থাকবে।

ভালো লাগলে সংবাদটি শেয়ার করুন....

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2018 Bandarban Pratidin.com
Design & Developed BY CHT Technology

করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯)

করোনা ভাইরাস তথ্য