শুক্রবার, ০৩ Jul ২০২০, ০৫:২৯ অপরাহ্ন

নাইক্ষ্যংছড়ির চাক হেডম্যান পাড়া- লংগদুর মুখ সড়ক নির্মাণ দ্রুত সম্পন্নের দাবী

নাইক্ষ্যংছড়ির চাক হেডম্যান পাড়া- লংগদুর মুখ সড়ক নির্মাণ দ্রুত সম্পন্নের দাবী

আব্দুর রশিদ, নাইক্ষ্যংছড়ি প্রতিনিধিঃ
নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার বাইশারী ইউনিয়নের দুর্গম জনপদ বাইশারী চাক হেডম্যান পাড়া হইতে পিএইচ পি রাবার বাগান হয়ে লংগদুর মুখ পর্যন্ত ব্রীক সলিন দ্বারা উন্নয়ন মুলক সড়কের কাজ দ্রুত সম্পন্ন করার দাবী জানিয়েছে এলাকার মানুষ। সড়কটি নির্মাণ হলে ভাগ্যের চাকা আমুল পরিবর্তন আসবে হাজারো জনসাধারণের।

পার্বত্যচট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড পরিচালিত ১০ কিলোমিটার রাস্তাটি ব্রীক সলিন দ্বারা উন্নয়ন মুলক কাজটি পেয়েছেন ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান মনি কনাস্ট্রাকশন। ২০১৮ থেকে ২০২০ সালের মধ্যে কাজটি সম্পন্ন করার কথা রয়েছে। ইতিমধ্যে ৬কিঃমিঃ এর মতন কাজ সম্পন্ন হলে ও আরো ৪ কিঃ মিঃ কাজ অসম্পন্ন রয়েছে বলে জানালেন স্থানীয় বাসিন্দা ও ইউপি সদস্য থোয়াই চাসাহ্লা চাক।

সরজমিনে ঘুরে দেখা যায়, বাইশারী চাকপাড়া হইতে পিএইচপি রাবার বাগান হয়ে লংগদুর মুখ পর্যন্ত সড়কটি নির্মান হলে পাল্টে যাবে পাহাড়ের চিত্র। ভাগ্যের পরিবর্তন হবে হাজারো খেটে খাওয়া সাধারন মানুষের। পাহাড়ে বসবাসরত ৫ টি গ্রামের লোকেদের সুযোগ সুবিধার বাড়বে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয় কয়েকজন বাসিন্দা জানান, কিছু কু চক্রী মহল রাস্তাটির উন্নয়ন কাজে বাধা প্রদান করছে। এনিয়ে আমরা কর্তৃপক্ষ বরাবর আবেদন করেছি। যাহাতে উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখে এবং ঐ দুষ্ট চক্রের বিরুদ্ধে আমরা তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছি।

ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের মালিক লিটন জানান, একদিকে করোনাভাইরাস ও অন্যদিকে আগাম বর্ষা হওয়ার কারনে কাজ একটু ধীর গতিতে চলছে। অবশ্যই শিডিউল মোতাবেক কাজ গুনগত মানেই সম্পন্ন করা হবে। এ বিষয়ে স্থানীয়দের সহযোগিতা চান তিনি।

ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মোঃ আলম কোম্পানি বলেন,  পার্বত্যমন্ত্রী সু নজরে পাল্টে যাচ্ছে বাইশারী ইউনিয়নের চিত্র। তিনি আরো বলেন, বাইশারীতে শত শত কোটি টাকার উন্নয়ন কাজ হয়েছে এবং বর্তমানে কয়েকশ কোটি টাকার কাজ চলমান রয়েছে। এসব পার্বত্য মন্ত্রীর অবদান।

এ বিষয়ে পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়নবোর্ড (বান্দরবান) এর নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃ ইয়াছিন আরাফাত মুঠোফোনে জানান, কাজের গুনগতমান ঠিক রেখে সড়কের উন্নয়নকাজ চলমান রয়েছে। নো কম্প্রোমাইজ নীতিতে কোন ধরনের অনিয়ম হলে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানকে ছাড় দেওয়া হবেনা। শতভাগ কাজ বুঝে নেওয়া হবে এবং যত দ্রুত সম্ভব কাজ সম্পন্ন করার চেষ্টা করে যাব আমরা।

ভালো লাগলে সংবাদটি শেয়ার করুন....

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2018 Bandarban Pratidin.com
Design & Developed BY CHT Technology

করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯)

করোনা ভাইরাস তথ্য