শুক্রবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১০:০৮ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
লামায় দুর্গম এলাকায় এক বাঁশ ব্যবসায়ীর লাশ উদ্ধারে যৌথবাহিনী থানচিতে স্বাভাবিক প্রসূতি সেবা নিশ্চিৎ করতে অবহিতকরন কর্মশালা   রোয়াংছড়ি শুকনাছড়ি পাড়ায় বন সংরক্ষণ সমিতির ২য় বার্ষিক সভা অনুষ্ঠিত বাইশারীতে পূজামণ্ডপ,পরিক্ষা কেন্দ্র ও বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্প পরিদর্শন করলেন ইউএনও সালমা  বান্দরবানের বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা দিলো বান্দরবান জোন পার্বত্য অঞ্চলে সর্বভৌমত্ব আইন শৃঙ্খলা রক্ষার জন্য ৩টি  আর্ম পুলিশ ব্যাটালিয়ান স্থাপন- আইজিপি প্রাণির স্বাস্থ্য সনদ জাল করে গরু চোরাচালান! আলীকদমে ইউনুচের বিরুদ্ধে প্রতারণা মামলা বান্দরবানে অস্ত্র ও ইয়াবাসহ চট্টগ্রামের বৈদ্য আটক বান্দরবানে ব্যবসায়ীকে অপহরণ করে হত্যার দায়ে ৫ জনের মৃত্যুদণ্ড পাহাড়ে মানুষের জন্য প্রধানমন্ত্রী খুবই আন্তরিক -পার্বত্য মন্ত্রী বীর বাহাদুর
বান্দরবানে র‌্যাবের অভিযানে ধ্বংস করলো ৪টি আফিম ক্ষেত, উদ্ধার ৬০ কেজি আফিম রস

বান্দরবানে র‌্যাবের অভিযানে ধ্বংস করলো ৪টি আফিম ক্ষেত, উদ্ধার ৬০ কেজি আফিম রস

নিজস্ব সংবাদ দাতাঃ
বান্দরবানে র‌্যাব সদস্যদের অভিযানে বিপুল পরিমাণ আফিম বাগান ধ্বংস করা হয়েছে। রুমা উপজেলার দুর্গম কেওক্রাডং এলাকায় র‌্যাব-৭ এর একটি দল অভিযান চালিয়ে ৪টি পপি ক্ষেত ধ্বংস করেছে।সেখান থেকে উদ্ধার করা করা হয়েছে প্রায় ৬০ কেজির মত পপির রস (আফিম)।

শুক্রবার সকাল ৭টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত এ অভিযান চালানো হয় বলে জানান র‌্যাব।

অভিযানে নেতৃত্বে থাকা র‌্যাব-৭ অধিনায়ক লেঃ কর্নেল মশিউর রহমান জানান, রুমার একটি দুর্গম এলাকায় নিষিদ্ধ পপি চাষ হচ্ছে এমন গোপন সংবাদের ভিত্তিতে রুমা সদর থেকে ২০ কিলোমটার দূরে কেওক্রাডং-এর আশপাশে কয়েকটি গভীর জঙ্গল ও পাহাড়ি ঝিড়ি ঝরনায় অভিযান চালানো হয়। প্রায় ৫ একরেরও বেশি এলাকা জুড়ে ৪টি পপি ক্ষেত ধ্বংস করা হয়। ‘নিষিদ্ধ এসব পপি বাইরে পাচারের উদ্দেশ্যে চাষ করা হয়। প্রায় ৭ একর এলাকাজুড়ে এসব ক্ষেত থেকে ৬০ কেজির পপির রস উদ্ধার করা হয়। তবে অভিযানের সময় ওই এলাকায় কাউকে পাওয়া যায়নি।

মশিউর রহমান আরও জানান, ক্ষেতের মালিককে খোঁজা হচ্ছে। তার বিরুদ্ধে মামলা করা হবে।

উল্লেখ্য বান্দরবানের মিয়ানমার সীমান্তবর্তী রুমা থানছি ও আলীকদমের দুর্গম এলাকায় স্থানীয় পাহাড়ি ও বেশ কিছু সন্ত্রাসী বাহিনী লাভজনক এই পপি চাষ করে আসছে দীর্ঘদিন থেকে। পপি বাগান থেকে উৎপাদিত আফিম সীমান্ত দিয়ে মায়ানমার ও ভারতে পাচার হয়ে থাকে বলে স্থানীয়রা জানিয়েছেন।

ভালো লাগলে সংবাদটি শেয়ার করুন....

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2018 Bandarban Pratidin.com
Design & Developed BY CHT Technology