বুধবার, ২৫ মে ২০২২, ০৭:৪৯ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
খাগড়াছড়ি গুইমারাতে আগুনে ঘর পুড়ে ছাই নাইক্ষ্যংছড়ি পাহাড় থেকে ১৩টি অস্ত্র ও বার্মিজ মদ উদ্ধার লামায় জুম ও প্রাকৃতিক বনাঞ্চলে আগুনে পুড়িয়ে দেওয়ায় রাবার কোম্পানির বিরুদ্ধে সংবাদ সন্মেলন বাইশারীতে আন্ত: প্রাথমিক ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা সম্পন্ন বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী নারীকে ধর্ষণকারি ফরহাদকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ বান্দরবান লেমুঝিরি পাড়ায় এক বুদ্ধি প্রতিবন্ধী ত্রিপুরা নারীকে ধর্ষণের অভিযোগ ৭ মাসের বকেয়া বেতন পরিশোধ এবং চাকুরী স্থায়ীকরণের দাবি জানিয়ে বান্দরবানে মানববন্ধন আলীকদমে লেকের পানিতে ডুবে দুই শিশুর মৃত্যু থানচি’র ইউএনও আতাউল গনি ওসমানী বিদায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত দুস্থ রোগীদের সহায়তার হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন বান্দরবান রোগী কল্যাণ সমিতি
বান্দরবান নিখোঁজ পর্যটক নৌবাহিনী কর্মকর্তার লাশ উদ্ধার

বান্দরবান নিখোঁজ পর্যটক নৌবাহিনী কর্মকর্তার লাশ উদ্ধার

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ
বান্দরবানের রুমা উপজেলার পর্যটন তিনাপ সাইতার দেখতে গিয়ে পাইন্দু খালে পানির স্রোতে ভেসে নিখোঁজ নৌবাহিনীর কর্মকর্তা সাব লেঃ মো. সাইফুল্লাহ্ (২৩) এর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। এদিকে, চট্টগ্রামের সাতকানিয়া উপজেলার বাজালিয়া এলাকার উপর দিয়ে প্রবাহিত সাঙ্গু নদীতে একটি নারীর লাশ ভাসতে দেখে স্থানীয়রা উদ্ধার করেছেন। তবে লাশটি নিখোঁজ আর্ট কলেজের ছাত্রী জান্নাত আরার বলে ধারনা করা করছেন এলাকাবাসী।

আজ  সোমবার (১ জুলাই) বেলা ১২ টার দিকে রুমা উপজেলার পাইন্দু ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের নিয়াক্ষ্যং পাড়ার এলাকা থেকে নৌবাহিনীর কর্মকর্তা সাব লেঃ মোহাম্মদ সাইফুল্লাহর (২৩) এর লাশ উদ্ধার করা হয়।

পাইন্দু ইউনিয়নের চেয়ারম্যান উহ্লামং মারমা জানান,  আজ ১২টার দিখে পাইন্দু খালে লাশ দেখতে পেয়ে স্থানিয়রা উদ্ধারকারী দলকে খবর দিলে সেখান থেকে নৌবাহিনীর কর্মকর্তা সাব লেঃ মোহাম্মদ সাইফুল্লাহর (২৩) এর লাশ উদ্ধার করা হয়।

রুমা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবুল কাশেম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বান্দরবান প্রতিদিনকে বলেন, পাইন্দু খাল থেকে উদ্ধার করা লাশটি নৌবাহিনীর কর্মকর্তা মো. সাইফুল্লাহর। তবে নিখোঁজ আর্ট কলেজ ছাত্রী জান্নাত আরার খোঁজ এখনো পাওয়া যায়নি। নৌবাহিনীর ডুবুরি দলসহ আমরা উদ্ধার অভিযান অব্যাহত রেখেছি।

প্রসঙ্গত, শনিবার রুমা উপজেলার দুর্গম তিনাপ সাইথার ঝর্ণা দেখে ফেরার পথে পাইন্দু খাল পার হওয়ার সময় স্রোতে নৌবাহিনীর কর্মকর্তা মোহাম্মদ সাইফুল্লাহ ও তার বান্ধবী জান্নাত আরা ভেসে যায়। তারা ছয় বন্ধু মিলে ওই এলাকায় ঝর্ণাটি দেখতে গিয়েছিল। ঘটনার পর চট্টগ্রাম থেকে নৌবাহিনীর ১০ জন ডুবুরি এনে উদ্ধার অভিযান শুরু করেন নিরাপত্তা বাহিনী।
ছবির ক্যাপশন: বান্দরবানের রুমা উপজেলার পর্যটন কেন্দ্র তিনাপ সাইতার ঝরনার ফাইল ছবি।

ভালো লাগলে সংবাদটি শেয়ার করুন....

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2018 Bandarban Pratidin.com
Design & Developed BY CHT Technology