মঙ্গলবার, ১৯ জানুয়ারী ২০২১, ০৪:৩৬ পূর্বাহ্ন

মহেশখালী পৌরসভায় জমে উঠেছে কোরবানি গরুর হাট বাজার

মহেশখালী পৌরসভায় জমে উঠেছে কোরবানি গরুর হাট বাজার

সরওয়ার কামাল, মহেশখালী সংবাদদাতা:

মহেশখালীতে আসন্ন ঈদুল আজহা ঈদের একদিন বাকী এ সময়ে জমে উঠেছে পৌরসভার কোরবানি গরুর হাট বাজার। বিগত চার বছর থেকে বিনা হাছিলে পৌরসভার কোরবানির গরুর হাট বাজার টি চালু করেছেন মহেশখালী পৌর কর্তৃপক্ষ।

এদিকে কোরবানির ঈদকে সামনে রেখে গত ১৯ ই আগস্ট রবিবার থেকে গরু ছাগলের ব্যাপক সমাগম ঘটেছে। ক্রেতা-বিক্রেতাদের নিরাপত্তার জন্য মহেশখালী পুলিশ প্রশাসনের পাশাপাশি পৌরসভার নিজস্ব লোকজন প্রতিনিয়ত কাজ করে যাচ্ছেন । মহেশখালীতে এবারের ঈদের বাজার গুলোতে ছোট ও মাঝারি আকারের গরুর চাহিদা থাকলেও দাম ভালো নেই বড় গরুর । এ বছর গরু-ছাগলের দাম গত বছরের তুলনায় বাজারে কিছুটা কম লক্ষ্য করার যাচ্ছে কিন্তু গরু বিক্রয়কারী অতি উচ্চ দামে গরুর দাম চাওয়ায় ক্রেতারা হাতাশা হয়ে পড়েছে।

অন্যদিকে ক্রেতাদের সাধ ও সাধ্যের সমন্বয় ঘটিয়ে ধর্মীয় কাজটি সমাধান করতে পশু কিনতে পারছেনা মধ্যবিত্ত পরিবার। বাজার ও মানুষের অর্থনৈতিক চাহিদা বিবেচনা ছাড়াই উচ্চ দাম বলে বেড়াচ্ছে বিক্রেতারা ফলে কিছু প্রবাসী এবং বিত্তসালীরা নিজের নামের জন্য পশু ক্রয় করতে পারলে ও মধ্য বিত্ত শ্রেণীর নাগালের বাইরে রয়েছে।

পৌরসভার গরুর হাট বাজারে ৩ লক্ষ টাকা দামের গরুটি বাজারে তুলেছেন শাপলাপুরের নজির আহম্মদ, নিজের গৃহপালিত পশুটি উচ্চ দামে বিক্রয়ের জন্য হাট বাজারে তুলেছেন। অপরদিকে এ বাজারে ২য় বড় গরুটি তুলেছেন হোয়ানকের আলী আহম্মদ গরুটি দাম ছেড়েছেন ২ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা।

কোন ধরনের হাছিল বা টোল আদায় ছাড়া বিনা শর্তে গরু বিক্রয়ের বাজারটিতে দূর-দূরান্ত থেকে গরুর বেপারি ও কৃষকরা নিজেদের খামারের গরু তুলেছেন। মহেশখালী পৌরসভাস্থ গরুর বাজারে দূূর-দূরান্ত থেকে আগতদের স্থানীয় সাইক্লোন সেন্টারে রাত্রিযাপনের ব্যবস্থা ও আলোক সজ্জা এবং পানিয় জলের ব্যবস্থা করেছে পৌর কর্তৃপক্ষ।

গরু ব্যবসায়ী নবির হোসেন জানান, মহেশখালী উপজেলায় অন্যান্য গরুর বাজার এর চেয়ে পৌরসভার পান বাজারে বেশি গরু জমায়েত হয়েছে। এবার পার্শ্ববর্তী মায়ানমার থেকে পর্যাপ্ত গরু না আসায় দেশি গরু বেশি দামে কিনতে আগ্রহী নয় অনেকেই।
মহেশখালী পৌরসভা পরিচালিত গরুর বাজারটি পরিদর্শন করেন পৌরসভার মেয়র আলহাজ্ব মকছুদ মিয়া এ সময় তিনি বাজারের ব্যবসায়ীদের সুবিধা ও অসুবিধার কৌশলাদী বিনিময় করেন। এ সময় তার সাথে উপস্থিত ছিলেন কাউন্সিলার গণ।

আসন্ন ঈদুল আজহা উপলক্ষে মহেশখালীর গরুর হাটের আইন শৃঙ্খলা ও ক্রেতা-বিক্রেতাদের নিরাপত্তার জন্য মহেশখালী পুলিশ থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) প্রদীপ কুমার দাশ এর সাথে কথা বললে তিনি জানান, হাটে ক্রেতা-বিক্রেতাদের নিরাপত্তার জন্য বিভিন্ন বাজার ও জন গরুত্বপূর্ণ সড়ক ও পয়েন্টে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। আশা করছি কোন প্রকার বিশৃঙ্খলা ঘটবে না।

ভালো লাগলে সংবাদটি শেয়ার করুন....

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2018 Bandarban Pratidin.com
Design & Developed BY CHT Technology