বৃহস্পতিবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২০, ১২:৪৮ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
আন্তর্জাতিক নারী মানবাধিকার রক্ষাকারী দিবস উপলক্ষে বান্দরবানে গুণীজন সংবর্ধনা ও আলোচনা সভা বান্দরবানে পৃথকভাবে শান্তিচুক্তির বর্ষপূর্তি ও নাগরিক পরিষদে চুক্তির ধারা সংশোধনের দাবি লামা সরই ইউনিয়নের স্পিড ব্রেকারে টমটম উল্টে একজনের মৃত্যু  থানচিতে বিজিবি বিশেষ টহলে অস্ত্র, এ্যামোনিশন ও বিভিন্ন সরঞ্জাম উদ্ধার বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নির্মাণে জনমনে বিভ্রান্তি সৃষ্টির প্রতিবাদে রাঙ্গামাটিতে বিক্ষোভ থানচিতে কঠিন চীবর দানোৎসব লামায় এক দিনের ব্যবধানে পানিতে ডুবে দুই শিশুর  মৃত্যু  যশোর কেশবপুরে মৎস্য ঘেরের ভেড়ি থেকে গাঁজার গাছ উদ্ধার, চাষি গ্রেফতার বান্দরবানে ভাবগাম্ভীর্যের মাধ্যমে  উজানী পাড়া বৌদ্ধ বিহারে কঠিন চীবর দানোৎসব চিম্বুক পাহাড়কে বাঁচতে দিন, স্থানীয়দের উচ্ছেদ বন্ধ করুন
রাঙ্গামাটিতে প্রাথমিক শিক্ষা বিভাগের সাংস্কৃতিক দলের উদ্বোধনী ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান

রাঙ্গামাটিতে প্রাথমিক শিক্ষা বিভাগের সাংস্কৃতিক দলের উদ্বোধনী ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান

লিটন শীল;রাঙ্গামাটি:
রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলার প্রাথমিক শিক্ষা বিভাগের সাংস্কৃতিক দলের উদ্বোধনী ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান সোমবার (১১মার্চ) বিকেলে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠির সাংষ্কৃতিক ইন্সটিটিউটে অনুষ্ঠিত হয়েছে।
রাঙ্গামাটি জেলা প্রাথমিক শিক্ষা ও সদর উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসের আয়োজনে অনুষ্ঠিত অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বৃষ কেতু চাকমা।
রাঙ্গামাটি জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোঃ খোরশেদ আলমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে রাঙ্গামাটি পৌর মেয়র আকবর হোসেন চৌধুরী, সহকারী জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা পরিনয় চাকমা, সদর উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা ত্রিরতন চাকমা বক্তব্য রাখেন।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বলেন, পার্বত্যঞ্চলের ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী শিক্ষার্থীদের ঝড়ে পরা রোধে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নৃগোষ্ঠী শিশুদের জন্য পাঠ্যবই প্রদান করছে। তাই সাধারন বইয়ের পাশাপাশি নৃগোষ্ঠীদের মার্তৃভাষার বই চর্চায় শিক্ষা প্রদান করতে হবে। এই সুযোগ সরকার আমাদের করে দিয়েছে। এ সুযোগকে কাজে লাগাতে হবে। তিনি বলেন, পড়ালেখার পাশাপাশি শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক কর্মকান্ডের প্রয়োজনীয়তা রয়েছে। বিশেষ করে একটি জাতির পরিচয় তার ভাষা ও সংস্কৃতি। শিক্ষা বিভাগের এই উদ্দ্যেগকে স্বাগত জানিয়ে তিনি বলেন, পার্বত্যঞ্চলের বসবাসরত জাতিগোষ্ঠীর রয়েছে নিজস্ব সাংস্কৃতি যা আগে থেকেই দেশে বিদেশে খুবই জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। এই সাংস্কৃতিক কর্মকান্ডের মাধ্যমে শিশুদের সুস্থ প্রতিভা আরো বিকশিত হওয়ার সুযোগ পাবে। তিনি প্রাথমিক শিক্ষা বিভাগের এই কর্মকান্ডকে আরো বেগবান করতে সাংস্কৃতিক সরঞ্জাম ক্রয়ের জন্য পরিষদ হতে ২লক্ষ ৫০হাজার টাকা প্রদানের ঘোষনা দেন।
প্রাথমিক শিক্ষা বিভাগ হতে প্রতিটি জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে সাংস্কৃতিক দল গঠন করা হবে বলে অনুষ্ঠানে জানান জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা।
পরে সদর উপজেলার বিভিন্ন প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের পরিবেশনায় মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।

ভালো লাগলে সংবাদটি শেয়ার করুন....

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2018 Bandarban Pratidin.com
Design & Developed BY CHT Technology