রবিবার, ১৩ Jun ২০২১, ০৮:০৮ পূর্বাহ্ন

রোয়াংছড়িতে ছাত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টা কালে আটক ১

রোয়াংছড়িতে ছাত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টা কালে আটক ১

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ
বান্দরবানের রোয়াংছড়ি উপজেলায় ৭ম শ্রেণী পড়ুয়া উপজাতি এক স্কুল ছাত্রীকে ঘরে ঢুকে ধর্ষণের চেষ্টাকালে মোঃ ইলিয়াস(৩৫) নামে এক যুবককে আটক করে পুলিশের হাতে সোর্পদ করেছে স্থানীয় জনতা।

গত বুধবার (১২ জুন) রাত দেড়টা নাগাদ এ ঘঁটনা ঘটে। মধ্য রাতে ছাত্রীর শোয়ার কক্ষে প্রবেশ করে জোর পূর্বক ধর্ষণের চেষ্টা করে ওই যুবক।

প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ সুত্রে জানা যায়, আটককৃত ধর্ষক মোঃ ইলিয়াস(৩৫) চট্রগ্রাম জেলার সাতকানিয়া উপজেলার পুরানগর ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা মোঃ মুক্তার আহাম্মদ এর ছেলে। সে রোয়াংছড়ি উপজেলার আলেক্ষ্যং ইউনিয়নের ওয়াগ্যইং পাড়া ফায়ার সার্ভিস স্টেশন এলাকায় মুন্ডির দোকান ব্যবসা করতেন।

ভিক্টিম কিশোরীর বাবা কিনারাম তঞ্চঙ্গ্যা বলেন, বুধবার রাতে প্রায় দেড়টা দিকে হঠাৎ আমার মেয়ের চিৎকারে শব্দ শুনে আমার স্ত্রীসহ মেয়ে শোয়ার ঘরে দিকে ছুটে গেলে তখন আমার দোকানে পাশের দোকানদার মো.ইলিয়াস আমার মেয়ে শোয়ার ঘর থেকে বের হয়ে পালানোর চেষ্টাকালে স্থানীয়দের সহযোগীতায় ইলিয়াসকে আটক করেন।

তিনি আরো বলেন, মো.ইলিয়াস প্রায় সময় এলাকার মেয়েদেরকে দেখলে উত্তপ্ত করতেন। কয়েকদিন আগেও আমার ছোট ভাইয়ের বউয়ের সঙ্গেও অসভ্য আচরণ করেছে। ঘটনার আলেক্ষ্যং ইউপি চেয়ারম্যান বিশ্বনাথ তঞ্চঙ্গ্যাকে ঘটনা ব্যাপারে অবহিত করা হলে তিনি এসে রোয়াংছড়ি থানার পুলিশকে খবর দিয়ে রাতে টহলরত পুলিশ ফোর্সের হাতে মো. ইলিয়াসকে সোর্পদ করে।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে রোয়াংছড়ি থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ শরিফুল ইসলাম বলেন, গতকাল বুধবার রাতে ভিক্টিম কিশোরীর ঘরে প্রবেশ করে শ্লীলতাহানিসহ জোরপূর্বক যৌনকামনা ও চরিতার্থ করার চেষ্টাকালে মোঃ ইলিয়াসকে স্থানীয়রা আটক করে পুলিশকে খবর দেয়। সংবাদ পেয়ে তাকে আটক করে থানা নিয়ে আসা হয়েছে।

ভিক্টিমের বাবা থানায় এসে আসামির বিরুদ্ধে দেশের প্রচালিত আইনে মামলা করেন। তার বিরোদ্ধে আইনআনুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

ভালো লাগলে সংবাদটি শেয়ার করুন....

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2018 Bandarban Pratidin.com
Design & Developed BY CHT Technology