মঙ্গলবার, ২৪ নভেম্বর ২০২০, ০৩:৫৩ পূর্বাহ্ন

লামায় ফাঁসিয়াখালীতে এক রোহিঙ্গা কাপড়ের দোকানে ঢিল মেরে সহিংসতা সৃষ্টির ঘটানোর অভিযোগ

লামায় ফাঁসিয়াখালীতে এক রোহিঙ্গা কাপড়ের দোকানে ঢিল মেরে সহিংসতা সৃষ্টির ঘটানোর অভিযোগ

মংছিংপ্রূ মার্মা, লামা প্রতিনিধিঃ
বান্দরবানে লামায় ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নে একটি কাপড় দোকানে সেলাই প্রশিক্ষণার্থীদেরকে কেন্দ্র করে এক রোহিঙ্গা ইট ছুঁড়ে মেরে এলাকার সহিংসতা ঘটানোর চেষ্টা অভিযোগ পাওয়া গেছে। শুক্রবার ১৪ সেপ্টেম্বার সন্ধ্যা ৭টা দিকে ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ড সাপেরঘাটা মারমা পাড়া সংলগ্ন সাপেরঘাটা বাজারে একটি কাপড়ে দোকানে এই ঘটনা ঘটে। এসময় হ্লানুচিং মার্মা (২০) নামে এক মেয়ে আহত হয় বলে দোকানদার সূত্রে জানা গেছে।

শুক্রবার স্থানীয় জনতা ও ঘটনা স্থান থেকে খাল ওপারে পার্শ্ববর্তী উপজেলার বাইশারী ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডে ইউপি মেম্বার আনোওয়ার হোসেনসহ এ হামালাকারী রোহিঙ্গা দুর্বৃত্তকে আটক করে পাশর্^বর্তী নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার কাগজি খোলা পুলিশ ফাঁড়িতে সোপর্দ করেছে বলে ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নের ইউপি মেম্বার নাছির উদ্দিন জানিয়েছে।

মেম্বার নাছির উদ্দিন ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, গত কয়েকদিন ধরে এই রোহিঙ্গা সাপেরঘাটা বাজারে ঐ দোকানে সেলাই প্রশিক্ষণার্থী মেয়েদেরকে নানাভাবে উত্যক্ত করে আসছিল। কখনও কখনও এলাকার অবস্থানরত সব মারমাদেরকে শেষ করে দেওয়ার হুমকিও দিয়ে আসছিল। গত শুক্রবার সাপেরঘাটা বাজারে কাপড়ের দোকনে সেলাই প্রশিক্ষণার্থীদের দিকে ইট ছুঁড়ে মারলে হ্লানুচিং মারমা (২০) নামে একজন মেয়ে আহত হয়। এতে স্থানীয় জনতা হাকলাকারী রোহিঙ্গাকে আটক করে পার্শ্ববর্তী উপজেলার নাইক্ষ্যংছড়ি কাগজিখোলা পুলিশ ফাঁড়িতে প্রদান করা হয়েছে।
নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার বাইশারী ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ড মেম্বার আনোয়ার হোসেন জানান, তার পার্শ্ববর্তী ওয়ার্ডে এক স্থানীয় আশাওয়ালী’র মেয়েকে বিয়ে করেছে এই রোহিঙ্গা। বিয়ে করে শ^শুর বাড়িতে বেড়াতে এসে এই ঘটনা ঘটিয়েছে।

নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার কাগজি খোলা পুলিশ ফাঁড়ি ইনচার্জ মনির হোসেন মুঠো ফোনে জানান, এক রোহিঙ্গা দুর্বৃত্ত দ্বারা ইট ছুড়ে মেরে এক মেয়েকে আহত করে পালিয়ে যাওয়ার সময় স্থানীয় জনগন তাকে আটক করে আমার পুলিশ ফাঁড়িতে সোপর্দ করেছে বলে শুনেছি। বর্তমানে আমি অফিসের কাজে বান্দরবানে আছি। রবিবার ফাঁড়িতে গিয়ে অভিযোগ দেখে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ফাঁসিয়াখালী ইউপি চেয়ারম্যান মো. জাকের হোসেন মজুমদার এই ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, শুক্রবারে স্থানীয় জনতা ঐ রোহিঙ্গাকে আটক করে পার্শ্ববর্তী নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলায় কাগজি খোলা পুলিশ ফাঁড়িতে সোপর্দ করা হয়েছে বলে আমি জানতে পেরেছি।

ভালো লাগলে সংবাদটি শেয়ার করুন....

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2018 Bandarban Pratidin.com
Design & Developed BY CHT Technology