শুক্রবার, ৩০ Jul ২০২১, ১১:৫০ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
রুমায় ভালুকের আক্রমণে গুরুতর আহত হলো জুম চাষি আগামী রবিবারে রাণীমা মরদেহ সৎকার করা হবে নাইক্ষ্যংছড়ির ঘুমধুমে রোহিঙ্গার শরনার্থীর লাশ উদ্ধার নাইক্ষ্যংছড়ি ঘুমধুমে ৪ শতাধিক পরিবার পানিবন্ধী, খামারিদের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি ঈদগাঁও -ইদগড় -বাইশারী সড়ক নদীর বুকে বিলীন, যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন টানা বৃষ্টিতে মহেশখালীতে পাহাড় ধ্বসে ২ জনের মৃত্যু! ৪শতাধিক ঘরবাাড়ি পানিবন্দি কেশবপুরে চালবাহী ট্রাক উল্টে মাছের ঘেরে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করলেন বান্দরবানে রাণী মা মাশৈনু  নাইক্ষ্যংছড়ি ঘুমধুমে বন্যার পানিতে ভেসে ২ জনের মৃত্যু, নিখোঁজ ১  ভারী বর্ষণে নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হচ্ছে নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা
লামায় সহকারী পুলিশ সুপারের নেতৃত্বে ট্রাফিক অভিযান

লামায় সহকারী পুলিশ সুপারের নেতৃত্বে ট্রাফিক অভিযান

মোহাম্মদ রফিকুল ইসলাম,বিশেষ প্রতিনিধি লামাঃ

বান্দরবানের লামায় মোটরযান আইন মেনে চলার পাশাপাশি ট্রাফিক ব্যবস্থায় শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনতে উপজেলার শহরের বিভিন্ন স্থানে লামা থানা ও ট্রাফিক পুলিশকে সাথে নিয়ে সাড়াশি অভিযানে নামে লামা সার্কেলের (লামা, আলীকদম ও নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা) সহকারী পুলিশ সুপার আবু সালাম চৌধুরী। রোববার (৮ জুলাই) লামা বাজার, সার্কেল অফিসের সামনে মেইন রোড়ে ও লাইনঝিনি তিনটি স্থানে এই অভিযান চলে। একই সাথে পার্শ্ববর্তী আলীকদম ও নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলায় এই অভিযান চালানো হয়।

সার্কেল অফিস সূত্রে জানা গেছে, গত ২৮ জুন ২০১৮ইং বৃহস্পতিবার মাহিন্দ্র, সিএনজি, টমটম ও অটো রিক্সার মালিক ও চালক সমিতির নেতাদের সাথে জরুরী বৈঠকে বসেন লামা সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার। বৈঠকে সবাইকে মোটরযান আইন মেনে যানবাহন চালাতে অনুরোধ করেন। এসময় মাহিন্দ্র, সিএনজি, টমটম ও অটো রিক্সার ডান পাশে সুরক্ষা রড লাগাতে ১০ দিনের সময় বেধে দেয়া হয়। ডান পাশে কোন যাত্রী উঠা-নামা না করাতে ও ড্রাইভারে ডান পাশে যাত্রী না বসাতে বলেন। অন্যথায় নির্দিষ্ট সময় শেষে আইন অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানান।

নির্দিষ্ট ১০ দিন শেষে রোববার (৮ জুলাই) মাঠে নামে পুলিশ। এসময় আইন অমান্যকারী ১৫/২০টি মাহিন্দ্র, সিএনজি, টমটম ও অটো রিক্সার আটক করা হয় এবং তাদের বিরুদ্ধে মোটরযান আইনে মামলা করা হয়। পাশাপাশি অতিরিক্ত মানুষ পরিবহন, হেলমেট না পারা ও কাগজপত্র সমস্যা থাকা মোটর সাইকেলের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা গ্রহণ করে পুলিশ।

লামা সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার আবু সালাম চৌধুরীর নেতৃত্বে অভিযানে এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন, লামা সার্কেলের পুলিশ পরিদর্শক কাজী রাকীব উদ্দিন, লামা ট্রাফিক পুলিশের পরিদর্শক জাহেদুল ইসলাম, এসআই জয়নাল আবেদীন, এএসআই শরিফ, আহসান হাবিব, নুরউদ্দিন, এবাদুল সহ প্রমূখ।

সহকারী পুলিশ সুপার আবু সালাম চৌধুরী বলেন, লোকাল পরিবহনের কাজে নিয়োজিত মাহিন্দ্র, সিএনজি, টমটম ও অটো রিক্সার গুলো নিয়ম না মানার কারণে প্রতিনিয়ত দূর্ঘটনা ঘটছে। এইসব যানবাহন গুলোর দুইপাশে যাত্রী উঠা-নামার কারণে রাস্তায় দূর্ঘনটা হচ্ছে সবসময়। গাড়ি গুলো ডান পাশে সুরক্ষা রড লাগাতে ২৮ জুন হতে ১০ দিন সময় বেধে দেয়া হয়েছিল। ইতিমধ্যে ৯০ শতাংশ গাড়িতে রড লাগানো হয়েছে। বিষয়টি সন্তোষজনক। যারা লাগাইনি তাদের বিরুদ্ধে ধারাবাহিকভাবে ব্যবস্থা নেয়া হবে। আলীকদম ও নাইক্ষ্যংছড়িতে একই অভিযান চলছে।

ভালো লাগলে সংবাদটি শেয়ার করুন....

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2018 Bandarban Pratidin.com
Design & Developed BY CHT Technology