মঙ্গলবার, ২৭ Jul ২০২১, ০৮:২০ পূর্বাহ্ন

লামা কোয়ান্টাম ফাউন্ডেশনে বড় পাইপের পানিতে তলিয়ে দুই ছাত্রের মৃত্যু

লামা কোয়ান্টাম ফাউন্ডেশনে বড় পাইপের পানিতে তলিয়ে দুই ছাত্রের মৃত্যু

লামা সংবাদদাতাঃ

লামার সরই ইউনিয়নের কোয়ান্টামে ফাউন্ডেশনের কসমো স্কুলের ৬ষ্ঠ শ্রেণীর দুই ছাত্র পানিতে ডুবে মারা গেছে। সরই পুলিশ ফাঁড়ির পুলিশের উপ-পরিদর্শক আমিনুল ইসলাম ভূঁইয়া দুই ছাত্র মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। সোমবার ৭ জুন বেলা ১১টায় কোয়ান্টাম কসমো স্কুলের সামনে মাঠে এই ঘটনা ঘটে।

এই বিষয়ে উপ-পরিদর্শক আমিনুল ইসলাম ভূঁইয়ার সাথে সোমবার বিকেলে কথা হয়। তিনি আরো বলেন, ঘটনাটি যদিও সকালের, আমরা বিষয়টি বিকেলে জানতে পারি। লাশ গুলো এখন পার্শ্ববর্তী লোহাগাড়া উপজেলার পদুয়া সরকারি হাসপাতালে রয়েছে।

নিহত শিশুরা হলো, কোয়ান্টাম কসমো স্কুলের ৬ষ্ঠ শ্রেণীর ছাত্র আব্দুল কাদের জিলানী (১২) ও মোঃ শ্রেয় মোস্তাফিজ (১১)। আব্দুল কাদের জিলানী চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার সদর উপজেলার চকবহরম এলাকার মোঃ রজব আলীর ছেলে এবং মোঃ শ্রেয় মোস্তাফিজ ঠাঁকুরগাও জেলার সদর উপজেলার হাজী পাড়ার বুলবুল মোস্তাফিজের ছেলে।

পুলিশের সূত্রে জানা যায়, সোমবার সকালে প্রচুর বৃষ্টিপাত হলে কসমো স্কুলের ছোট ছোট ৬০/৭০ জন বাচ্চা স্কুল মাঠে খেলছিল। স্কুল গুলো পাহাড়ের উপরে অবস্থিত। স্কুলের ও পার্শ্ববর্তী পাহাড়ের বৃষ্টির পানি যাওয়ার জন্য স্কুল মাঠে একপাশে বড় পাইপ দিয়ে পুলু খালে পর্যন্ত প্রায় একশত ফুট দীর্ঘ পানির রাস্তা করা হয়। খেলার কোন এক ফাঁকে বাচ্চা দুইটি পাইপের মুখে গেলে ভারি বৃষ্টির প্রচুর পানির স্রোতে তারা পাইপের গর্তে পড়ে যায়। পাইপের ভিতর দিয়ে পানির সাথে গড়িয়ে পুলু খালে গিয়ে পড়ে। সেখানে তাদের মৃত্যু হয়।

তবে মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত হতে কোয়ান্টাম কর্তৃপক্ষ তাদের লোহাগাড়া পদুয়া সরকারি হাসপাতালে নিয়ে যায়।

এই বিষয়ে জানতে সরই কোয়ান্টাম ফাউন্ডেশনের অর্গানিয়ার (ব্যবস্থাপক) অ্যাডভোকেট আরিফের মুঠো ফোনে একাধিকবার ফোন দিলেও তিনি কল রিসিভ না করার তার বক্তব্য জানা যায়নি।

লামা থানা পুলিশের অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ (ভারপ্রাপ্ত) মোঃ আলমগীর বলেন, আমি সরজমিনে ঘটনাস্থলে আসি। এইটি একটি আবাসিক স্কুল এন্ড কলেজ। এখানে প্রায় ১৫ শত ছেলে-মেয়ে আবাসিকভাবে থেকে লেখাপড়া করে। সকালে বৃষ্টি শুরু হলে ৬০/৭০ জন ছেলেরা বৃষ্টির পানিতে খেলতে বের হয়। কোন এক ফাঁকে দুইটি শিশু পানির পাইপে দিয়ে গড়িয়ে খালে পড়ে মৃত্যু হয়। সন্ধ্যায় লাশ দুইটি পুলিশের হেফাজতে নিয়ে প্রাথমিক সুরতহাল শেষে ময়নাতদন্তের জন্য বান্দরবান জেলা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে

ভালো লাগলে সংবাদটি শেয়ার করুন....

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2018 Bandarban Pratidin.com
Design & Developed BY CHT Technology