রবিবার, ১৭ জানুয়ারী ২০২১, ১১:২৬ পূর্বাহ্ন

শান্তি চুক্তি অগ্রযাত্রার ২১ বছর উদযাপন করলো

শান্তি চুক্তি অগ্রযাত্রার ২১ বছর উদযাপন করলো

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ
আজ ২রা ডিসেম্বর শান্তি চুক্তি দিবস। পার্বত্য চট্টগ্রাম অশান্ত পাহাড়কে শান্ত করতে শান্তি চুক্তি করা হয় ১৯৯৭ সালে ২রা ডিসেম্বর এই দিনে। তাই আজ উদযাপিত হলো চুক্তির অগ্রযাত্রার ২১ বছর পূর্তি।

আজ ২রা ডিসেম্বর রবিবার সকাল ৯ ঘটিকার সময় বান্দরবান পার্বত্য জেলা শান্তি চুক্তি অগ্রযাত্রার ২১ বছর পূর্তি উপলক্ষে বান্দরবান জেলা প্রশাসকের প্রাঙ্গন থেকে একটি বর্নাঢ্য র‌্যালী বের হয়ে প্রধান সড়ক প্রদক্ষিন করে রাজার মাঠে এসে শেষ হয়। র‌্যালী শেষে একটি আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয় রাজার মাঠে। দিন ব্যাপী কর্মসূচিতে রয়েছে আলোচনা সভা,বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা প্রদান ও ঔষধ বিতরণ, শিক্ষা সমগ্রী ও শীতবস্ত্র বিতরণ, প্রীতি ফুটবল ম্যাচ এবং সন্ধ্যায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে শেষ হবে।

র‌্যালী ও আলোচনা সভায় উপস্থিত ছিলেন, জেলা পরিষদে চেয়ারম্যান ক্যশৈহ্লা, জেলা প্রশাসক দাউদুল ইসলাম, পুলিশ সুপার মোঃ জাকির হোসেন মজুমদার, সেনা বাহিনী এবং বিজিবি কর্মকর্তাগন উপস্থিত ছিলেন। বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের উদ্যেগে বান্দরবান সেনা রিজিয়ন, জেলা প্রশাসন,পুলিশ প্রশাসন ও অন্যান্য প্রতিষ্ঠানে সহায়তায় বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহন করা হয়।

আলোচা সভায় বক্তারা বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রাম শান্তি শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আন্তে শান্তি চুক্তি সম্পাদন করা হয়। আঞ্চলিক পরিষদ গঠন করা হয়েছে, তিন পার্বত্য জেলা পরিষদ করা হয়েছে, উন্নয়ন বোর্ড গঠন করা হয়েছে এগুলোতো চুক্তির আলো। প্রায় চুক্তি বাস্তবায়ন করা হয়েছে। আর যেগুলা বাকি রয়েছে সেগুলি সময় নিয়ে বাস্তবায়ন করা হবে বলে বক্তারা জানান।

পৃথকভাবে পিসিজেএসএস আজ দুপুর ১ ঘটিকার সময় শান্তি চুক্তি ২১ বছর পূর্তি উদযাপন উপলক্ষ্যে অরুণ সারকি টাউন হলে একটি আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। আয়োজন করেছে পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহটি সমিতি বান্দরবান পার্বত্য জেলা।

উক্ত আলোচনা সভায় উপস্থিত ছিলেন, আঞ্চলিক পরিষদের সদস্য ক্যসা মং মরামা, উছোমং ,জলিমং, অং থোই চিং মারমা, জোয়াম লিয়াম আমলাই, ওয়াইচিং প্রæ,বাথোয়াই চিং।

আলোচনায় বক্তারা বলেন, অশান্ত পাহাড়কে শান্ত করেছে ঠিক, কিছু বাস্তবাায়নও করেছে এটাও ঠিক। তবে মুল যে বিষয়গুলো যেমন ভূমি সমস্যা, ভারতে শরণার্থী ও পুর্নবাসন, আদিবাসি স্বীকৃতি ও সেটেলার সমস্যা, পুলিশ প্রশাসন জেলা পরিষদের আওতায় আনা এখনো বাস্তবায়ন বা সমাধান করা হয়নি। সরকার এসব বিষয়গুলো সমাধান করা হলে বাস্তবায়ন নিশ্চিত হওয়া যাবে বলে বক্তারা বলেন।

ভালো লাগলে সংবাদটি শেয়ার করুন....

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2018 Bandarban Pratidin.com
Design & Developed BY CHT Technology