শুক্রবার, ২০ মে ২০২২, ০৪:৪৯ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
লামায় জুম ও প্রাকৃতিক বনাঞ্চলে আগুনে পুড়িয়ে দেওয়ায় রাবার কোম্পানির বিরুদ্ধে সংবাদ সন্মেলন বাইশারীতে আন্ত: প্রাথমিক ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা সম্পন্ন বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী নারীকে ধর্ষণকারি ফরহাদকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ বান্দরবান লেমুঝিরি পাড়ায় এক বুদ্ধি প্রতিবন্ধী ত্রিপুরা নারীকে ধর্ষণের অভিযোগ ৭ মাসের বকেয়া বেতন পরিশোধ এবং চাকুরী স্থায়ীকরণের দাবি জানিয়ে বান্দরবানে মানববন্ধন আলীকদমে লেকের পানিতে ডুবে দুই শিশুর মৃত্যু থানচি’র ইউএনও আতাউল গনি ওসমানী বিদায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত দুস্থ রোগীদের সহায়তার হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন বান্দরবান রোগী কল্যাণ সমিতি বান্দরবানে আরো এক সপ্তাহ পুরনো দামে সয়াবিন তেল বিক্রি করা হবে লামায় জেলা পরিষদের উদ্যোগে সেই অসহায় ৩৬ পরিবারকে ত্রাণ
১৩ দিন যাবৎ নিখোঁজ ৫ম শ্রেণীর ছাত্র আলতাজ

১৩ দিন যাবৎ নিখোঁজ ৫ম শ্রেণীর ছাত্র আলতাজ

মোহাম্মদ রফিকুল ইসলাম, বিশেষ প্রতিনিধি:

বাড়ি থেকে কাউকে কিছু না বলে বেড়িয়ে যায় আলতাজ মিয়া (১৩)। সে লামা উপজেলার ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নের হায়দারনাশী অংশা ঝিরি এলাকার মনছুর আলম ও রেহেনা বেগমের ছেলে এবং বান ও বাম হাতির ছড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৫ম শ্রেণীর ছাত্র। গত ১৮ জুলাই বুধবার দুপুর হতে আলতাজ মিয়া নিখোঁজ রয়েছে বলে জানায় তার পিতা মনছুর আলম।

এদিকে সন্তানকে হারিয়ে মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে পরিবারের সদস্যরা। সম্ভাব্য সকল আত্মীয় স্বজনদের বাড়িতে খোঁজ করে না পেয়ে অবশেষে ১৩দিন পরে মঙ্গলবার শিশুটির পিতা মনছুর আলী নিখোঁজের বিষয়টি লামা থানাকে অবহিত করে সন্তান উদ্ধারে সহায়তা চেয়ে সাধারণ ডায়েরি করেন। লামা থানা সাধারণ ডায়েরি নং- ১৩২৬, তারিখ- ৩১ জুলাই ২০১৮ইং।
থানা পুলিশের ডিওটি অফিসার এএসআই কাবুল হোসেন জানান, সন্তান হারানো বিষয়টি মঙ্গলবার সকালে মনছুর আলী থানাকে অবহিত করলে আমি অফিসার ইনচার্জ এর অনুমতি সাপেক্ষে নিখোঁজের বিষয়ে সাধারণ ডায়েরি ভুক্ত করি।

আলতাজ এর পিতা মনছুর আলম বলেন, নিখোঁজের সময় আমার ছেলের গায়ে নীল রংয়ের ফুল হাতা শার্ট, কালো রংয়ের ফুল পেন্ট ছিল। তার গায়ের রং শ্যামলা, চুল কালো, উচ্চতা ৪ ফুট, মুখমন্ডল গোলাকার এবং সে চট্টগ্রামের আঞ্চলিক ভাষায় কথা বলে। ১৮ জুলাই হতে সে নিখোঁজ। গত ২৬ জুলাই বৃহস্পতিবার আমার ছেলেকে স্কুলে খুঁজতে গেলে তার সহপাঠীদের তথ্য মতে আরেক সহপাঠী রশিদ পিতা- আনছার আলীর বাড়ি থেকে আমার ছেলের ১টি মোবাইল ফোন, ১টি চার্জার, ১টি ফুটবল খুজে পাই। তারা আমার ছেলের কোন সন্ধান জানেনা বলে জানায়।

বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করে লামা থানা পুলিশের অফিসার ইনচার্জ অপ্পেলা রাজু নাহা বলেন, প্রাপ্ত তথ্য মতে আলতাজ কে খুঁজে বের করতে চেষ্টা করছে পুলিশ।

ভালো লাগলে সংবাদটি শেয়ার করুন....

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2018 Bandarban Pratidin.com
Design & Developed BY CHT Technology